1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
টঙ্গীতে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ হ্যান্ডকাফ উদ্ধার হলে ও গ্রেপ্তার হয়নি আসামী হাতিয়ায় আদিপত্য বিস্তার কে কেন্দ্র করে দু,গ্রুপে সংঘর্ষ আটক-৫ ঠাকুরগাঁওয়ে এলজিইডি’র সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজনের অংশগ্রহনে সভা । ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরে আবারো ১৪৪ ধারা জারি । ঠাকুরগাঁওয়ে হোসেনগাঁও দাখিল মাদ্রাসায় পিয়ন পদের আশায় ১৬ শতাংশ জমি দান, চাকরি না পাওয়ায় জমি দখল । মোহনপুরে নার্সকে হাতুড়িপেটা মামলার আসামিকে দুইদিনের রিমান্ড চিরিরবন্দরে মুরগীর ফার্ম থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার রাজশাহীর দুর্গাপুরে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আখতারের ওপর হামলা ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈল উপজেলায় আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ।

কাপাসিয়ার আলোচিত চেয়ারম্যানের শ্যালকের বাড়ি থেকে উদ্ধার ভিকটিম: আদালতে জবানবন্দি পেশ

প্রশাসন
  • সময় : বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৫০ বার পঠিত

কাপাসিয়ার আলোচিত চেয়ারম্যানের শ্যালকের বাড়ি থেকে উদ্ধার ভিকটিম: আদালতে জবানবন্দি পেশ

নাজমুল হক স্টাফ রিপোর্টার:

ধর্ষনের পর সন্তান প্রসবের ঘটনায় আসামীর দখল থেকে উদ্ধার হওয়া ভিকটিম আদালতে ১২২ ধারায় দেয়া জবানবন্দিতে দিয়েছেন। জবানবন্দিতে তিনি জানিয়েছেন তার এই সন্তানের পিতা চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন।
আজ বুধবার ভোরে এই মামলার প্রধান আসামী কাপাসিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন প্রধানের শ্যালকের দখল থেকে পিবিআই ভিকটিমকে উদ্ধার করে আদালতে উপস্থিত করে। আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১২২ ধারায় দেয়া জবানবন্দিতে ভিকটিম বলেন, স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে সাখায়াওয়াত তাকে একাধিকবার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষন করেছেন। ধর্ষনের পর গর্ভবতি হলে কাজের লোকের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দেয় চেয়ারম্যান। বাচ্চা প্রসবের পর আসামীর শ্যালক তাকে বাচ্চা সহ অপহরণ করে।
গাজীপুর আদালতে নাম প্রকাশে অনচ্ছিুক একটি দায়িত্বশীল সূত্র এই তথ্য নিশ্চিত করেন।
আদালত সূত্র জানায়, ভিকটিমের জবানবন্দির পর তার বাবা জিম্মায় মেয়েকে দেয়ার আবদেন করলেও আইনী আনুষ্ঠানিকতার জন্য ভিকটিমকে রাষ্ট্রীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন বিচারক।
এদিকে পুলিশ জানিয়েছেন, ধর্ষণ ও বাচ্চা প্রসবের ঘটনায় প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ভিকটিম তাদের হেফাজতে থাকবেন।
অপরদিকে নিজেকে নির্দোষ দাবী করে অভিযুক্ত সাখাওয়াত চেয়ারম্যান কাপাসিয়ায় প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছেন। তিনি প্রতিবাদ কর্মসুচির শেষে দৈনিক আমার সময়কে বলেন, পিবিআই বাচ্চাসহ মা ও নানীকে নিয়ে গেছে। জবানবন্দি দিয়েছে। আমি আইনি প্রক্রিয়ার অপেক্ষায় আছি। আমার শ্যালকের বাড়িতে আশ্রিত ছিলো, যা কাপাসিয়া থানার ওসিও অবগত আছেন।

কাপাসিয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও কাপাসিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন প্রধানের বাসার কাজের মেয়ে অন্ত:সত্বা হয়ে পড়লে চেয়ারম্যার ৭মাসের গর্ভবতি ভিকটিমকে কাজের ছেলের সাথে বিয়ে দেন।

এরপর ভিকটিমকে ভাড়া বাসায় সরিয়ে নেন। ১৪ আগষ্ট ভিকটিম একটি কন্য সন্তান প্রসব করেন। সন্তানটি সাখাওয়াত চেয়ারম্যানের বলে বাচ্চা কোলে মেয়েটি গণমাধ্যমে বলার পর ২৯ আগষ্ট বাচ্চা সহ মেয়ে ও মেয়ের মাকেও অপহরণ করেন সাখাওয়াত চেয়ারম্যানের স্ত্রী ও শ্যালক।

এ বিষয়ে কাপাসিয়া থানা পুলিশ কোন মামলা গ্রহন না করায় ভিকটিমের বাবা গাজীপুর নারী শিশু আদালতে মামলা দায়ের করলে আদালত ২৩ নভেম্বর প্রতিবেদন দিতে পিবিআইকে নির্দেশ দেন। আজ ভোরে আসামীর শশুর বাড়ি থেকে পিবিআই ভিকটিমকে বাচ্চা সহ উদ্ধার করে একই সাথে বাচ্চার নানীও উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি। পিবিআই বলছে, আদালতের আদেশ প্রতিবেদন দেয়ার। গ্রেফতারের নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD