1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নানা আয়োজনে দৈনিক বাংলাদেশ কণ্ঠ’র প্রতিষ্ঠা বাষিকী পালন নাগেশ্বরীতে আলোকিত কুড়িগ্রামের মিলনমেলা-২০২২ অনুষ্ঠিত সুবর্ণ ব্লাড ফাউন্ডেশনের ৫ম বর্ষপূর্তি উৎযাপন। যমুনায় ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ, হাজারো মানুষের ঢল নোয়াখালীতে পিকাপ ভ্যানের ধাক্কায় বৃদ্ধের মৃত্যু যৌনসন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল ইসলামী আন্দোলনের নোয়াখালীতে ১২০০পিস ইয়াবাসহ আটক-২ পদোন্নতি পেলেন সাংবাদিক পেটানো মামলার আসামি বিএমডিএ কর্মচারী রাজশাহী নগরীতে সাতটি ফ্ল্যাটের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিলেন এমপি ফারুক ঠাকুরগাঁওয়ে ভেলাজান আনছারিয়া ফাযিল ডিগ্রি মাদ্রাসার সহ– অধ্যাপককের ছাত্রী সঙ্গে কেলেঙ্কারির কারণে সাময়িক বরখাস্ত ।

নিখোঁজ বৃদ্ধ,র সন্ধান পাওয়া যায়নি, স্বামীর লাশের অপেক্ষায় পদ্মার পাড়ে স্ত্রীসহ-স্বজনারা

প্রশাসন
  • সময় : শুক্রবার, ২৬ আগস্ট, ২০২২
  • ১৬ বার পঠিত

নিখোঁজ বৃদ্ধ,র সন্ধান পাওয়া যায়নি, স্বামীর লাশের অপেক্ষায় পদ্মার পাড়ে স্ত্রীসহ-স্বজনারা

এম এম মামুন, রাজশাহী :

রাজশাহীর বাঘায় পদ্মার পাড় ভেঙ্গে নদীতে মজাহার হোসেন মুজা মাঝি (৬২) নামের এক বৃদ্ধ নিখোঁজ হয়ে যায়। এখনও তাঁকে খোঁজে পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ স্বামীর লাশের অপেক্ষায় পদ্মা নদীর পাড়ে বসে অপেক্ষা করছেন স্ত্রীসহ-স্বজনারা।
বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) বেলা দেড়টার দিকে পদ্মার মধ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়নের চৌমাদিয়া চরে এই ঘটনা ঘটেছে। এদিকে এক মাসের ব্যবধানে ৪০টি পরিবাররের বাড়িঘর পদ্মা গর্ভে বিলিন হয়েছে বলে জানা গেছে। নিখোঁজ স্বামীর লাশের অপেক্ষায় ঘটনার পর থেকে পদ্মা নদীর পাড়ে বসে অপেক্ষা
করছেন স্ত্রী মজিরণ। শুক্রবার সকালে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘনটাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
চকরাজাপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর চৌমাদিয়া ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুর রহমান জানান, গত প্রায় ২০ দিন ধরে নদীতে পানি বাড়ছে। সেই সাথে দেখা দিয়েছে ভাঙন। ইতোমধ্যে অনেক ফসলি জমিসহ প্রায় ৪০ টি পরিবার নদী গর্ভে বিলিন হয়েছে।
ভাঙ্গনের কবল থেকে রক্ষা পেতে অনেকেই তাদের বসত ভিটা অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছেন। তাদেরই একজন মজাহার হোসেন মুজা মাঝি (৬২)। তিনি বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াই টার সময় ভেঙে ফেলা বসতভিটা দেখতে এসে নদীর পাড়ে দাঁড়িয়ে মনের দুঃখে কান্না করছিল। এ সময় পাড় ভেঙে নদীতে নিখোঁজ হয়ে যান তিনি। ঘটনার পর থেকে তাঁকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।
এদিকে খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে থানা পুলিশ এবং শুক্রবার সকালে বাঘা ফায়ার সার্ভিস এর লোকজন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান, নদীতে এখন অনেক অনেক স্রোত। মজাহার হোসেন মুজা মাঝির লাশ কোথায় কখন ভেসে উঠবে সেটা বলা মুসকিল। অনেকেই ধারনা করছেন এ লাশ হয়তো আর কখনোই খুঁজে পাওয়া যাবেনা। তবে লাশ পাওয়ার অধীর অপেক্ষায় নদীর পাড়ে এসে মাথায় হাত দিয়ে বসে আছেন তার স্ত্রী মজিরণ ।
ভাঙন কবলিত পদ্মার পাড় থেকে প্রত্যক্ষদর্শী আওলাদ দেওয়ান ও আমিরুল ইসলাম জানান, ঐ বৃদ্ধকে তারা বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার টার সময় নদীর পাড়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন। চোখের নিমিশে নদীর পাড় ভাঙনসহ তার চিৎকার শোনা যায়। এরপর তারাসহ প্রতিবেশি লোকজন নৌকা এবং জাল নিয়ে অনেক খোঁজা-খুঁজি করেও মজাহার হোসেনের সন্ধান মেলেনি।
চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডি.এম মনোয়ার হোসেন বাবলু বলেন, আগে থেকেই ভাঙন চলছিল। বর্তমানে পানি বৃদ্ধির সাথে ভাঙন পূর্বের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। তাঁর মতে, মজাহার হোসেন পানিতে পড়ে নিখোঁজ হওয়াটি মর্মান্তিক। তিনি এ ঘটনার জন্য দু:খ প্রকাশ করেন।
এ বিষয়ে বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, বৃহস্পতিবার আমি রাজশাহীতে মিটিং-এ ছিলাম। ঘটনা শুনেছি। আমি আজকে ঐ পরিবারের সাথে দেখা করতে যাবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD