1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঃনিখোঁজ বিজ্ঞপ্তিঃ জরুরী সংস্কার প্রয়োজন ঠাকুরগাঁওয়ের চৌধুরীপাড়া জামে মসজিদে ফাটল : দুর্ঘটনার আশংকা । সুবর্ণচরে কলেজ প্রতিষ্ঠা, ইউনিয়ন বিভাজন বিষয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত মনগড়া ভোটার তালিকা প্রণয়ন ঠাকুরগাঁওয়ে স্টেশন ক্লাবের কমিটি গঠনে নিষেধাজ্ঞা ! ধুলোবালি ও ময়লা আবর্জনায় অতিষ্ঠ জনজীবন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে মন্দির পরিদর্শন করেন সাবেক খেলনা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুস সালাম বেলকুচিতে জাতীয় কন্যাশিশু দিবস পালিত ঠাকুরগাঁওয়ে আনসার সদস্য ও স্থানীয়দের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলা, আহত– ৮ ঠাকুরগাঁওয়ে মাদকসহ ব্যবসায়ী আটক । ঠাকুরগাঁওয়ে নানা আয়োজনে বিশ্ব শিশু দিবস পালিত

মুক্তাগাছায় ডিলারের কারসাজিতে ক্ষুব্ধ রেশন কার্ডধারীরা

প্রশাসন
  • সময় : সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২
  • ৫১ বার পঠিত

সাদেকুল ইসলাম

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলায় ডিলারের কারসাজিতে রেশন কার্ডের চাল না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে কাশিমপুর ইউনিয়নের রেশন কার্ডের ডিলার মো. নাদিম আলীর বিরুদ্ধে। নাদিম আলী মুক্তাগাছা পৌর শহরের মৃত মজিদ আলীর ছেলে।

জানা গেছে উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়নের সোনারগাঁও গ্রামের বাসিন্দা সোহেলের স্ত্রী নাছিমা বেগম ও আব্দুছ সামাদের স্ত্রী মমতাজ বেগম তিনবার রেশন কার্ডের দশ টাকা দরে চাল উঠাতে পারলেও পরে তাদের কাছ থেকে কৌশলে রেশন কার্ড নিয়ে নেই ডিলার মো.নাদিম আলী। পরে ভুক্তভোগীরা কার্ড চাইতে গেলে, কার্ড না দিয়ে নানা অজুহাতে ঘুরাতে থাকেন ডিলার নাদিম। একসঙ্গে কার্ড করে প্রতিবেশীরা তিন তিনবার চাল উঠাতে পারলেও ডিলারের কারসাজিতে চাল উঠাতে না পেরে চলতি বছরের ২৫ জুলাই মাসে প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)বরাবর ডিলার নাদিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন ভূক্তভোগী নাছিমা ও মমতাজ বেগম।

এ ধরণের অভিযোগ শুধু নাছিমা বা মমতাজের একার নয়। রেশন কার্ড প্রসঙ্গে সরেজমিনে কাশিমপুর ইউনিয়নের সোনারগাঁও এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে ডিলার নাদিমের বিরুদ্ধে এমন একই ধরণের অভিযোগ করেছেন ওই এলাকার মৃত অনিল রায়ের স্ত্রী শেফালী রায়, জিতু রবি দাসের স্ত্রী আকালী রবি দাস, নুর জাহানের মেয়ে নুরুন্নাহার। এছাড়াও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই।

ভূক্তভোগীদের অভিযোগ ডিলার কারসাজি করে তাদের রেশন কার্ড আটকে রেখেছেন। গ্রামের অনেকেরই কার্ড নানা অজুহাতে আটকে রেখে, ডিলার সেই কার্ড দিয়ে গোপনে নিজেই চাল উত্তোলন করছেন।

অভিযোগের বিষয়ে ডিলার মো.নাদিম আলীর সাথে মোবাইল ফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

ভূক্তভোগী নাছিমা ও মমতাজ বেগম বলেন, আমরা উভয়ই কার্ড দিয়ে তিনবার চাল তুলেছি। ডিলার কারসাজি করে আমাদের কার্ড আটকিয়ে রাখছে। প্রতিকার চাইতে উপজেলা খাদ‍্য নিয়ন্ত্রক মো. সাইফুল ইসলামের কাছে গেলে তিনি ডিলারের পক্ষ নিয়ে আমাদেরকে ধমক দিয়ে অফিস থেকে বের হয়ে যেতে বলেন।

ভূক্তভোগীদের ধমক দেওয়া বা অফিস থেকে বের করে দেওয়া প্রসঙ্গে উপজেলা খাদ‍্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মো.সাইফুল ইসলাম জানান,তাদের কোন প্রকার ধমক দেওয়া কিংবা অফিস থেকে বের করে দেওয়া হয়নি। তাছাড়াও (ইউএনও) স‍্যারের নির্দেশনায় বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব‍্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কাশিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার চেয়ারম্যান জানান,রেশন কার্ডধারীরা অনেকেই নিয়মিত মাল পাচ্ছে না, বিষয়টি শুনেছি তবে ঘটনা সত্য হলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব‍্যবস্থা নেওয়া উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD