1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:২৪ অপরাহ্ন
সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:২৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বিরামপুরে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছার ৯২ তম জন্মবার্ষিকী পালিত ঠাকুরগাঁওয়ে একটি অবৈধ কারখানা কাগজ পত্রছাড়াই ড্রামের ময়লাযুক্ত তেল বোতলে ভরে বিক্রি করা হচ্ছে বালিয়াডাঙ্গীতে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা এর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও দুঃস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন ও নগদ টাকার চেক বিতরণ করা হয় আজ সকাল থেকে উত্তর ত্রিপুরাতে ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের ডাকে শান্তিপূর্ণ ধর্মঘট পালিত হচ্ছে আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে দল কে শক্তিশালী করতে তৃনমূল দলের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হল মগরাহাট পশ্চিমে ময়মনসিংহে জ্বালানী তেলের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির ও অতিরিক্ত লোডশেডিং এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ সখীপুর থানার এসআই মনিরুজ্জামান ৮ম বারের মতো জেলার শ্রেষ্ঠ এসআই আগামী কাল ত্রিপুরাতে ১৬,দফা, দাবিতে ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের পক্ষ থেকে উত্তর ত্রিপুরা হরতালের ডাক টঙ্গীতে ফুটপাতে দোকান বসতে না দেওয়ার জের ধরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর, লুট আহত -২ মুক্তাগাছায় চোরের উপদ্রব ক্রমশঃ বাড়ছে

নড়াইলের কালিয়ায় ইভটিজিংয়ের বিচারের নামে প্রহসন, ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী

প্রশাসন
  • সময় : শনিবার, ৯ জুলাই, ২০২২
  • ৩৬ বার পঠিত

মোঃ হাচিবুর রহমান,নড়াইল প্রতিনিধিঃ

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার কলাবাড়ীয়া হাইস্কুলে ইভটিজার মিজানের বিচারের নামে প্রহসন করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিচারের আসরে দাওয়াত প্রাপ্ত কয়েকজন গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। কোটিপতি বাবার ছেলের ইভটিজিংয়ের বিচারের নামে প্রধান শিক্ষকসহ স্কুল কমিটির আতাত করা তারা মেনে নিতে না পেরে স্থান ত্যাগ করেছেন বলে জানান। ০৮ জুলাই (শুক্রবার) ১১ টায় প্রধান শিক্ষকের কক্ষে এ বিচারের কার্য পরিচালিত হয়। এ ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে উপযুক্ত বিচার দাবি করেছেন স্থাণীয়রা। মিজান সরদার ওই গ্রামের ইমরান সরদারের ছেলে।

স্থাণীয় বাজারবাসী জানান, গত মাসের ২৯ তারিখ দুপুরে কলাবাড়ীয়া হাই স্কুলের পাশে ওই স্কুলের একটি মেয়েকে ইভটিজিংয়ের সময় মিজান সরদার (১৩) নামে এক বখাটেকে আটক করে উত্তম-মাধ্যম দেওয়া হয় এবং ওই দিনই বিকেলে বখাটে মিজান তার কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে দেশীয় অস্ত্রে বাজারবাসীদের হামলা করতে আসলে তারা প্রতিরোধ করতে উদ্ধত হয়। এ সময় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মিজানকে ধরে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নিকট সোপর্দ করে। এ সময় মিজানের দাদা খবির সরদার ধার্য্যকৃত বিচারের দিন ইভটিজারকে হাজির করানোর লিখিত অঙ্গীকার দিয়ে তাকে নিয়ে যান। কিন্তু ওই দিন গন্যমান্য ও স্কুল কমিটির লোকজন হাজির হলেও মিজান হাজির হয়নি। পরবর্তীতে ৮ জুলাই তারিখে স্কুল কমিটি বিচারের নামে প্রহসন করায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন তারা।

মিজানের পিতা ইমরান সরদার বলেন, তার ছেলে আগে ওই স্কুলে পড়তো। তার পরিচিত এক ছাত্রীর সাথে সে রাস্তার পাশে কথা বলছিল। এ সময় বাজারের কিছু লোক তাকে হামলা করে। আজ বিচারের দিনে আমাকে দায়িত্ব দিলে আমি তাকে একটা চড় দিলে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এতে হয় অনেকে অসšুÍষ্ট হতে পারে।

ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মহাসীন বলেন, ইভটিারকে ৫টি বেতের বাড়ী দেওয়া হয়েছে। এছাড়া উপস্থিত সমাজের গন্যমান্যদের কাছে ও প্রধান শিক্ষকের কাছে মাফ চাওয়ানো হয়েছে।

কলাবাড়ীয়া হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক গণপতি বলেন, ওটা ইভটিজিং ছিলনা। বিচারের আসরে ওই ছেলে সমাজের কাছে ক্ষমা চেয়েছে এবং তার ভুল স্বীকার করেছে।
প্রবীন ব্যক্তিত্ব ডাঃ রেজাউল হক মল্লিক ও মুকুল মোল্যাসহ আরো অনেকে বলেন, দাওয়াতের চিঠি পেয়েই ওখানে গিয়েছিলাম। কিন্তু এ ধরণের বিচার হবে জানলে আসতামনা। ইভটিজারদের সঠিকভাবে বিচারের আওতায় না আনলে পরবর্তীতে স্কুলই ক্ষতিগ্রস্থ হবে। নিরাপত্তাহীনতার কারণে কোন অভিভাবক তার মেয়েদের এই স্কুলে পড়াতে দিবেনা। এমনটি আমার আশা করিনি। এদিকে ইভটিজারের বিচারের বিষয়ে মিজানের বাবা ইমরান সরদার, স্কুল কমিটির সদস্য ও. প্রধান শিক্ষকের বক্তব্যে ভিন্নতা পরিলক্ষিত হওয়ায় দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

মোঃহাচিবুর রহমান, কালিয়া( নড়াইল) প্রতিনিধি।
০৯/০৭/২০২২
মোবাঃ০১৭১৬৭৯৭৮৫৯কালিয়ায় ইভটিজিংয়ের বিচারের নামে প্রহসন, ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী!

মোঃ হাচিবুর রহমান,কালিয়া (নড়াইল) প্রতিনিধিঃ

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার কলাবাড়ীয়া হাইস্কুলে ইভটিজার মিজানের বিচারের নামে প্রহসন করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিচারের আসরে দাওয়াত প্রাপ্ত কয়েকজন গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। কোটিপতি বাবার ছেলের ইভটিজিংয়ের বিচারের নামে প্রধান শিক্ষকসহ স্কুল কমিটির আতাত করা তারা মেনে নিতে না পেরে স্থান ত্যাগ করেছেন বলে জানান। ০৮ জুলাই (শুক্রবার) ১১ টায় প্রধান শিক্ষকের কক্ষে এ বিচারের কার্য পরিচালিত হয়। এ ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে উপযুক্ত বিচার দাবি করেছেন স্থাণীয়রা। মিজান সরদার ওই গ্রামের ইমরান সরদারের ছেলে।

স্থাণীয় বাজারবাসী জানান, গত মাসের ২৯ তারিখ দুপুরে কলাবাড়ীয়া হাই স্কুলের পাশে ওই স্কুলের একটি মেয়েকে ইভটিজিংয়ের সময় মিজান সরদার (১৩) নামে এক বখাটেকে আটক করে উত্তম-মাধ্যম দেওয়া হয় এবং ওই দিনই বিকেলে বখাটে মিজান তার কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে দেশীয় অস্ত্রে বাজারবাসীদের হামলা করতে আসলে তারা প্রতিরোধ করতে উদ্ধত হয়। এ সময় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মিজানকে ধরে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নিকট সোপর্দ করে। এ সময় মিজানের দাদা খবির সরদার ধার্য্যকৃত বিচারের দিন ইভটিজারকে হাজির করানোর লিখিত অঙ্গীকার দিয়ে তাকে নিয়ে যান। কিন্তু ওই দিন গন্যমান্য ও স্কুল কমিটির লোকজন হাজির হলেও মিজান হাজির হয়নি। পরবর্তীতে ৮ জুলাই তারিখে স্কুল কমিটি বিচারের নামে প্রহসন করায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন তারা।

মিজানের পিতা ইমরান সরদার বলেন, তার ছেলে আগে ওই স্কুলে পড়তো। তার পরিচিত এক ছাত্রীর সাথে সে রাস্তার পাশে কথা বলছিল। এ সময় বাজারের কিছু লোক তাকে হামলা করে। আজ বিচারের দিনে আমাকে দায়িত্ব দিলে আমি তাকে একটা চড় দিলে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এতে হয় অনেকে অসন্তুষ্টি হতে পারে।

ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মহাসীন বলেন, ইভটিারকে ৫টি বেতের বাড়ী দেওয়া হয়েছে। এছাড়া উপস্থিত সমাজের গন্যমান্যদের কাছে ও প্রধান শিক্ষকের কাছে মাফ চাওয়ানো হয়েছে।

কলাবাড়ীয়া হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক গণপতি বলেন, ওটা ইভটিজিং ছিলনা। বিচারের আসরে ওই ছেলে সমাজের কাছে ক্ষমা চেয়েছে এবং তার ভুল স্বীকার করেছে।
প্রবীন ব্যক্তিত্ব ডাঃ রেজাউল হক মল্লিক ও মুকুল মোল্যাসহ আরো অনেকে বলেন, দাওয়াতের চিঠি পেয়েই ওখানে গিয়েছিলাম। কিন্তু এ ধরণের বিচার হবে জানলে আসতামনা। ইভটিজারদের সঠিকভাবে বিচারের আওতায় না আনলে পরবর্তীতে স্কুলই ক্ষতিগ্রস্থ হবে। নিরাপত্তাহীনতার কারণে কোন অভিভাবক তার মেয়েদের এই স্কুলে পড়াতে দিবেনা। এমনটি আমার আশা করিনি। এদিকে ইভটিজারের বিচারের বিষয়ে মিজানের বাবা ইমরান সরদার, স্কুল কমিটির সদস্য ও. প্রধান শিক্ষকের বক্তব্যে ভিন্নতা পরিলক্ষিত হওয়ায় দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

মোঃহাচিবুর রহমান,( নড়াইল প্রতিনিধি।
০৯/০৭/২০২২
মোবাঃ০১৭১৬৭৯৭৮৫৯

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD