1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
গাজীপুরে পরিবহনে ডাকাত দলের ৪ সদস্যকে আটক করেছে কাশিমপুর মেট্রোথানা পুলিশ জিএমপি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ব্যবসায়ী হত্যা কান্ডের মূলহোতা গ্রেপ্তার কোম্পানীগঞ্জে চোর সন্দেহে রোহিঙ্গা যুবক আটক প্রেমের বিয়ে স্বামীর সাথে ফোনে কথা বলে আত্মহত্যা ১৫ জুলাই তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের ডাক সখীপুরে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২ চাঁপাইনবাবগঞ্জে সদর মডেল থানার অভিযানে গাঁজাসহ ১জন গ্রেফতার মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তালগাছী আবু ইসহাক উচ্চ বিদ্যালয়ে আন্তঃ শ্রেণী ফুটবল টুনামেন্ট ২০২২ অনুষ্ঠিত গাজীপুর মহানগর যুবলীগের উদ্যোগ বাংলাদেশ যুবলীগের চেয়ারম্যানের জন্মদিন পালন

ঠাকুরগাঁওয়ে মরিচের বাম্পার ফলন : ভাল দাম পেয়ে খুশি কৃষক ।

প্রশাসন
  • সময় : রবিবার, ২৯ মে, ২০২২
  • ২৬ বার পঠিত

মোঃ মজিবর রহমান শেখ,,
ঠাকুরগাঁও জেলায় মরিচের বাম্পার ফলন হয়েছে। ফলে কৃষকের মুখে ফুটেছে প্রশান্তির হাসি। মরিচ চাষে শুধু চাষিরাই লাভবান হননি, বেশি দাম পাওয়ায় লাভবান হয়েছেন সংশ্লিষ্ট দিনমজুর সহ ব্যবসায়ীরাও।
ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার ঢোলারহাট, শিবগঞ্জ, মাদারগঞ্জ, ভাউলার হাট, দেবীগঞ্জ, আরাজী ঝাড়াগাঁও, ভেলাজান, রুহিয়া, বালিয়াডাঙ্গী, খোচাবাড়ী, রামনাথ সহ প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোর বিস্তীর্ণ জমিতে করা হয়েছে মরিচের আবাদ। লাল-সবুজে সয়লাব মরিচেতে। কেউ মরিচ তে পরিচর্যা করছেন, কেউ মরিচ তুলছেন, আবার কেউ বাজারে নিয়ে যাচ্ছেন। বাজারে দাম ভালো পাওয়ায় মরিচ চাষ করেই স্বাবলম্বী হয়েছে এ এলাকার অনেক চাষি পরিবার। আবার যাদের জমি নেই, তারা অন্যের জমি বর্গা নিয়ে মরিচ চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন।
চলতি মৌসুমেও কৃষকের কাছ থেকে ৬০ থেকে ৮০ হাজার টাকায় বিঘাপ্রতি মরিচ তে কিনে পাইকাররা বিঘাপ্রতি ৩ থেকে ৫ গুন লাভ করছেন। পরে ঠাকুরগাঁও জেলার সদর ভাউলার হাট ও বিভিন্ন হাট বাজারে প্রতি মণ মরিচ ৩ থেকে ৪ লক্ষাধিক টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। অনেক কৃষক কাঁচা মরিচ ক্ষেত থেকে তুলে তা রোদে শুকনো বানিয়ে বাড়তি দামে বিক্রি করছেন। বর্তমানে বাজারে প্রতি মন মরিচ জাত ভেদে ৭ থেকে ৮ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার শীবগঞ্জ এলাকার মরিচচাষী গিয়াস উদ্দিন বলেন, এ বছর সাড়ে ৩ বিঘা জমিতে মরিচ চাষ করেছিলাম। প্রতি বিঘায় খরচ হয়েছে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। বিঘা প্রতি মরিচ তে ১ থেকে দেড় লাখ টাকায় বিক্রি করা যাবে। ঠাকুরগাঁও
সদর উপজেলার রুহিয়া কুজিশহর এলাকার কৃষক ও ব্যবসায়ি রবিউল ইসলাম রবি বলেন, এ বছর শুকনা মরিচ ৮ হাজার টাকা মন বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও জিরা মরিচ (চিকন) ৮ হাজারের উপরে বিক্রি হচ্ছে। ছ্যাকা মরিচ ৭ হাজারের উপরে বিক্রি হচ্ছে। সব মিলিয়ে এ বছর মরিচের অনেক ভাল দাম পাওয়া যাচ্ছে। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আরাজী ঝাড়গাঁও গ্রামের কৃষক আবুল কালাম আজাদ জানান, ক্ষেত থেকে মরিচ এনে সরাসরি বিক্রি করে ভাল দাম পাওয়া যাচ্ছে। এর আগে দূরের বাজারে নিতে পরিবহন খরচ বেশি লাগতো। এখন বাড়ির পাশেই মরিচের একাধিক ছোট ছোট হাট বসে, সেখানে গিয়ে মরিচ ন্যর্য দামে বিক্রি করা যায় এবং আড়তে গিয়ে টেপাল দেওয়া এবং দর কষাকষির ঝামেলা থেকে মুক্তির জন্য বাড়ির পাশেই মরিচ বিক্রির কথা জানান তিনি। ঠাকুরগাঁও
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ –পরিচালক কৃষিবিদ আবু হোসেন জানান, চলতি মৌসুমে ঠাকুরগাঁও জেলায় ১ হাজার ১২০ হেক্টর জমিতে মরিচের চাষ হয়েছে। গত বছরের চেয়ে এবার মরিচের ফলন ভালো হয়েছে। বাজারে উচ্চ মূল্য থাকায় কৃষকরা লাভবান হচ্ছেন। আমরা প্রত্যেক কৃষককে সার, বীজসহ বিভিন্ন ধরনের সহায়তা করেছি। বেশি করে মরিচ চাষে উদ্বুদ্ধ করতে কৃষি বিভাগ কৃষককে প্রশিণ দেওয়ার ব্যবস্থা করায় ব্যাপক সাফল্য এসেছে।

মোঃ মজিবর রহমান শেখ
০১৭১৭৫৯০৪৪৪

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD