1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বাগমারায় ভবানীগঞ্জ পৌর বিএনপির উদ্যোগে লিফলেট বিতরন কেশবপুরে তিনদিন থেকে নিখোঁজ! স্কুলছাত্র নদী-সরদার! গ্লোবাল টেলিভিশনে শুভ যাত্রা উপলক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জে কেক কাটা ও দোয়া মাহফিল বাংদেশের আকাশে জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে (১০ জুলাই) রবিবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে! ঠাকুরগাঁওয়ে রাণীশংকৈলে ৩ ইউপি নির্বাচনে ২০১ মনোনয়ন দাখিল — আচরণ বিধি লঙ্গন ঠাকুরগাঁওয়ে সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস উপলক্ষে র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান রাণীশংকৈলে সাংবাদিক শিল্পীর বাবার ইন্তেকাল র্যাগিং এ জিরো টলারেন্স নীতির ঘোষণা বশেমুরবিপ্রবি প্রশাসনের নোয়াখালীতে বাধার মুখে একদিনেই বন্ধ হলো বিআরটিসি বাস সার্ভিস আজ বাকুঁড়ায় জঙ্গল মহল পরিদর্শন কালে একান্ত সাক্ষাৎকার এস পি সাথে জননেতা শওকাত মোল্লার

রাজশাহীতে সড়ক দুর্ঘটনায় মা-বাবা-ছোট বোনকে হারিয়ে একা হয়ে গেলেন নুসরাত

প্রশাসন
  • সময় : রবিবার, ১৫ মে, ২০২২
  • ৪৬৯ বার পঠিত

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো : রাজশাহীর পবায় মাটিবাহী ট্রাক্টরের সঙ্গে দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে বাবা-মা-মেয়েসহ চারজন নিহত হয়েছেন।
রোববার (১৫ মে) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়কের মদনহাটি এলকায় আমান কোল্ডস্টোরের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার ভাবিকা ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের আক্তার হোসেন (৩৫) একটি মোটরসাইকেলে তার স্ত্রী বিথি (৩৩) ও কন্যা মরিয়ম জান্নাতকে (৪) নিয়ে রোববার সকালে রাজশাহীর দিকে আসছিলেন। ওই সময় অপর একটি মোটরসাইকেলে নওগাঁর মান্দা থানার বাসিন্দা আব্দুল মান্নান (৪৮) রাজশাহী শহর থেকে গ্রামের বাড়ি মান্দার দিকে যাচ্ছিলেন।
পুলিশ জানায়, রাজশাহী-নওগাঁ সড়কের নওহাটা এলাকার আমান কোল্ডস্টোরের সামনে মাটিবাহী ট্রাক্টর পবার দিকে আসছিল। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই ট্রাক্টরের সঙ্গে দুটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই আব্দুল মান্নান ও মরিয়ম জান্নাত মারা যান।
গুরুতর আহত অবস্থায় আক্তার হোসেন ও তার স্ত্রী বিথিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক বিথিকে মৃত ঘোষণা করেন। তার স্বামী আক্তার হোসেনকে হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আক্তার হোসেনও মারা যান।
নিহত আক্তারের খালাতো ভাই জাফর ইকবাল জানান, আক্তার নিয়ামতপুর উপজেলার একজন দলিললেখক। তার পরিবারের বড় মেয়ে নুসরাত জাহান ছাড়া সবাই মারা গেল। বড় মেয়ে নুসরাত জাহান (১২) বাড়িতে থাকায় সে বেঁচে গেল। স্ত্রী বিথির চিকিৎসার জন্য নিয়ামতপুর থেকে রাজশাহীতে আসছিলেন আক্তার। চিকিৎসাও হলো না। জীবনগুলোও নিভে গেল।
পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ উদ্দীন বলেন, সংঘর্ষে বাবা-মা-মেয়েসহ দুটি মোটরসাইকেলে থাকা চারজনই মারা গেছেন। এদের মধ্যে দুজন ঘটনাস্থলে দুজন হাসপাতালে মারা যান। দুর্ঘটনার পর ট্রাক্টরচালক পালিয়ে গেছেন। ঘটনার কোনো প্রত্যক্ষদর্শী নাই। এ কারণে কীভাবে সংঘর্ষ হয়েছে তা জানা যায়নি। লাশ মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD