1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩৭ অপরাহ্ন
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শরীয়তপুরে সড়ক নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ! জয়পুর শ্রী তারক ধামে সন্ত্রাসী হামলায় মতুয়ারা আহত বিচারের দাবী!! ১নং উথুরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে প্রচার -প্রচারনায় ব্যস্ত মো.আমিনুল ইসলাম বাবুল। ১নং উথুরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৮নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে প্রচার -প্রচারনায় ব্যস্ত আবু জুরাইজ সরকার ১নং উথুরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে প্রচার -প্রচারনায় ব্যস্ত মো.লাল মিয়া। রংপুর স্টেশনে ভাসমান মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করলো মানবাধিকার সংস্থা আসক ফাউন্ডেশন, দক্ষ পুলিশ সমৃদ্ধ দেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ এই শ্লোগান নিয়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ হাইওয়ে পুলিশ, অফিসার ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম দোহাজারী হাইওয়ে। ১নং উথুরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে প্রচার -প্রচারনায় ব্যস্ত মো.লাল মিয়া। লোহাগাড়া থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ২১০০(দুই হাজার একশত) পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেফতার ০১ জন। বিএমএসএফ’র সভায় সন্ত্রাসী হামলা,কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত :জাতীয় পরিষদ গঠন

ওমিক্রন রোধে ১১ দফা বিধিনিষেধ কার্যকরের দ্বিতীয় দিনেউ যশোরে প্রশাসনের কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি

প্রশাসন
  • সময় : শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২২
  • ৩৮ বার পঠিত

যশোর জেলা প্রতিনিধি (আশরাফুল ইসলাম বাবু)

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন রোধে সরকারের দেওয়া ১১ দফা নির্দেশনা বাস্তবায়নের শুরুর দিন ছিলো গতকাল বৃহস্পতিবার। সরকারের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে হাঁকডাকের পরও যশোরে এ নির্দেশনা পালনে প্রশাসনের তেমন কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি। যেকারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলার প্রবণতা ঠিক আগের মতই ছিলো সর্বত্র। শহরের ব্যস্ততম এলাকা থেকে শুরু করে বাজারের মতো জনসমাগমের জায়গায় অনেকেরই মুখে ছিল না কোনো মাস্ক। কারো মুখে মাস্ক থাকলেও ছিলনা তার সঠিক ব্যবহার। তবে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রথম দিন মাঠ পর্যায়ে তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট স্বাস্থ্য সচেতনতায় কাজ করেছেন। পর্যায়ক্রমে এ বিষয়ে কঠোর হবে প্রশাসন।
বৃহস্পতিবার সকালে যশোর শহরের বড়বাজার এলাকায় গিয়ে দেখা যায় প্রায় সবাই চলছেন ঠিক আগের মতই। কারো ভেতর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আঁচ পর্যন্ত নেই। সবাই যে যার মতো চলছে মাস্কবিহীন। করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের জন্য যে নতুন করে দেশব্যাপী স্বাস্থ্যবিধি আরোপ করা হয়েছে, বাজারে মানুষের চলাফেরা দেখে তা বোঝার কোনো উপায় নেই। দোকানি থেকে শুরু করে ক্রেতারা মাস্ক ছাড়া যে যার মতো কেনা-বেচায় হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। বড়বাজারের মাছ বাজারে কথা হয়, আব্দুর রশিদ নামে ষাটোর্ধ এক ব্যক্তির সাথে। বৃদ্ধ বয়সেও মাস্ক ছাড়া বাজারে এসেছেন মাছ কিনতে। মাস্ক ছাড়া কেনো বাজারে এসেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, করোনা তো চলে গেছে এখন আর মাস্ক পরতে ভালো লাগে না। ওমিক্রনের জন্য নতুন বিধিনিষেধ জারি হয়েছে জানেন কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমরা মাঠে ঘাটে খেটে খায় বাবা ওসব জানার সময় নেই। একই বাজারে কথা হয়, শরিফুল ইসলাম নামে আরেক ব্যক্তির সাথে। তিনি ক্ষোভের সাথে বলেন, শহরের কোনো মানুষের মুখে তো আর মাস্ক দেখলাম না এখন আমাদের কেনো মাস্ক পরতে হবে। সব জায়গায় মানুষ ঘুরে বেড়াচ্ছে মাস্ক ছাড়া অথচ যত আইন সব বাজারে।
স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলার এ উদাসীনতার ছাপ ছিলো দূরপাল্লার ও আন্তঃজেলা বাসগুলোতে। বৃহস্পতিবার থেকে পরিবহনগুলোতে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের কথা থাকলেও বাস মালিকরা আগামী শনিবার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে যশোর উপশহর খাজুরা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, অধিকাংশ দূরপাল্লার বাসে যাত্রীরা আগের মতো ঠাঁসাঠাঁসি করে যাতায়াত করছেন। কথা হয় ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের যাত্রী তৈয়বুর রহমান ও হাফিজা আক্তারের সাথে। তারা বলেন, চার দিন আগেই টিকিট কেটেছেন ঢাকায় যাবেন বলে। সেইভাবে এসে আমরা গাড়িতে উঠেছি। তবে নতুন বিধিনিষেধের বিষয়ে পরিবহনের কাউন্টার থেকে কিছুই বলা হয়নি। ওই বাসে থাকা আজিজুর রহমান নামে আরেক যাত্রী বলেন, করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন রোধে সরকার নতুন করে যে বিধিনিষেধ জারি করেছে সে বিষয়ে তারা এখনও কিছুই জানেন না। তিনি বলেন, সবকিছু ওপেন রেখে শুধু পরিবহনে বিধিনিষেধ জোরদার করলে চলবে না।
এ বিষয়ে দেশ ট্র্যাভেলসের টিকিট বিক্রয় প্রতিনিধি এ এইচ এম সালাউদ্দীন মাহমুদ বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার থেকে পরিবহনগুলোতে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচলের নির্দেশনা দেওয়া হলেও আমাদের মালিকরা এ বিষয়ে আগামী শনিবার থেকে কার্যকরের কথা বলেছেন। সেই হিসেবে আমরা আগের নিয়মেই যাত্রীদের টিকিট দিচ্ছি। শনিবার থেকে পূর্ণাঙ্গ স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী তোলা হবে বলে তিনি জানান। তবে ওমিক্রন রোধে সরকারের পক্ষ থেকে বারবার কঠোর হওয়ার ব্যাপারে নীতিনির্ধারকরা বেশ হাঁকডাক দিলেও গতকাল বৃহস্পতিবার যশোরে কোথাও কারো মানতে দেখা যায়নি। এমনকী প্রশাসনের তৎপরতাও কোথাও তেমন দেখা যায়নি। এ বিষয়ে জেলা অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মো. সায়েমুজ্জামান বলেন, প্রথম দিনে যশোর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে ছিলেন। তারা মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতনতার বিষয়ে নানাভাবে উৎসাহিত করেছেন। তিনি বলেন, আমরা প্রথম দিনে তেমন কোনো কঠোর পদক্ষেপ নিইনি। শুধু সবাইকে এ বিষয়ে সচেতন করেছি। তবে আগামীতে মানুষের জীবন বাঁচানোর স্বার্থে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানতে সকলকে বাধ্য করা হবে। এ বিষয়ে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD