1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
হাসপাতালে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য, ছবি তোলায় সাংবাদিককে হুমকি কাশিমপুরে সরকারি রাস্তা বন্ধ করে দিল এক প্রভাবশালী সখীপুরে স্বামীর আড়াইলাখ টাকা স্বর্ন অলংকার নিয়ে স্ত্রী উধাও ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় সরকারি অধিগ্রহণ হওয়া ভূমির ৪৫ জন মালিককে ৫১ কোটি টাকার চেক হস্তান্তর করেছে ঢাকা জেলা প্রশাসন। বীর মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন তোফা’র রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন নড়াইল ডিবি পুলিশের অভিযানে গাজাসহ গ্রেফতার ১ সখীপুরে দুই ইটভাটার মালিককে জরিমানা ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ২২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন ও স্বজন সমাবেশ। জবি রোভার স্কাউট গ্রুপ এবং রোভার স্কাউট অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের শীতবস্ত্র বিতরণ কাপ্তাই বড়ইছড়ি সাপ্তাহিক বাজারে মাস্কবিহীন অপরাধে ভ্রাম্যমান অভিযানে ১৩ মামলা

রাজধানী ঢাকায় দুই দিন ব্যাপি বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান জাতীয় ঐক্য পরিষদ সম্মেলন-২০২২ইং অনুষ্ঠিত।

প্রশাসন
  • সময় : শনিবার, ৮ জানুয়ারি, ২০২২
  • ৪৬ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার; এস আর টুটুল এম এল-খোলা নিউজ বিডি-২৪,

ধর্মীয় রাষ্ট্র নয়’ ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র চাই-ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার!

এই প্রতিপাদ্য দিয়ে রাজধানীর ধর্মীয়-জাতিগত বৈষম্য বিরোধী মানবাধিকার সংগঠন’ বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান জাতীয় ঐক্য পরিষদের আয়োজনে রাজধানীর ইন্জিনিয়ার ইনিস্টিউট মিলনায়তনে ১০ম জাতীয় সম্মেলন ২০২২ইং অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

গত ৪-জানুয়ারী বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি সুত্রে জানা যায়, অদ্য ৭-জানুয়ারী (শুক্রবার) সকাল ১০-০০ মিনিটের সময় প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. সৈদ আনোয়ার হোসেন সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন করেন।
এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন; বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি।
বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন; মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আন্তর্জাতিক বিষয়ক ডঃ গওহর রিজভী এমপি।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন; সংসদে বিরধী দলিয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি।
জনসংহতির চেয়ারম্যান ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা)।
বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান এমপি।
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি।
বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এমপি।
বাংলাদেশ কমুনিষ্ট পার্টির সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।
তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল।
জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান।
বিশিষ্ট গবেষক প্রফেসার ড. আবুল বারকাত।
একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির।
বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আলী শিকদার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা, নাট্যব্যক্তিত্ব নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু এবং বিশিষ্ট বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাষ্টি ড. সারোয়ার আলী।
উল্লেখ যে, দ্বিতীয় দিন ৮-জানুয়ারী (শনিবার) সকাল ১০ টায় কাউন্সিল অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়ে চলবে সারাদিন।

উক্ত বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান জাতীয় ঐক্য পরিষদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত জাতীয় সম্মেলনে দেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলার হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের লিডার ও সদস্যবৃন্দের ন্যায় রাজশাহীর তানোর উপজেলার হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের লিডার বিশ্বজিতের নেতৃত্বে, বিজয় কুমার প্রামানিক, হিরা কুমার হলদার, সুফল সরকার, উজ্জল কুমার, মিলন কুমার, সুজিত দাস, সনজিৎ মজুমদার, সুকমল তরফদারসহ (০৯) নয় সদস্যের একটি টিম অংশগ্রহণ করেছেন।

ইতিহাসবিদ অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন; এই বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ নয়, বন্ধু বলেছিলেন; বাংলাদেশ একটি আদর্শ রাষ্ট্র হবে, যার ভিত্তি কোন ধর্ম হবে না। কিন্তু সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম রেখে মানবিক বাংলাদেশ গঠন সম্ভব না। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রের দাবি নিয়ে আন্দোলনরত সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সংগঠন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের দশম ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করে তিনি এসব কথা বলেন।
সম্মেলনের সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সাবেক অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন আরও বলেন; (১৯৭২ সালের) এই জানুয়ারি মাসেরই ১০ তারিখে পাকিস্থানের কারাগার থেকে দেশে প্রত্যাবর্তন করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
সে দিন রেসকোর্স ময়দানে ১৭ মিনিটের ভাষণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেছিলেন; বাংলাদেশ একটি আদর্শ রাষ্ট্র হবে। যার ভিত্তি কোন ধর্ম হবে না। রাষ্ট্রের ভিত্তি হবে ধর্মনিরপেক্ষতা গণতন্ত্র ও সমাজতন্ত্র। পরে ১৯৭২ সালের অক্টোবরে সংবিধান গৃহীত হওয়ার সময় এতে জাতীয়তাবাদ যুক্ত হয়েছিল।
সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন পঁচাত্তরের পনেরোই আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর, জিয়াউর রহমানের অবৈধ সামরিক সরকার ধর্মনিরপেক্ষতাকে সংবিধান থেকে উড়িয়ে দিল। এরপর আরেক সামরিক শাসক জেনারেল এরশাদ এসে এর সঙ্গে সংগে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম যোগ করলেন। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০১১ সালে পঞ্চদশ সংশোধনীর মাধ্যমে ধর্মনিরপেক্ষতা যুক্ত করল বটে। কিন্তু তেলে-জলে মিলাতে পারলাম না। এখানে ধর্মনিরপেক্ষতা আছে, আবার রাষ্ট্রধর্ম আছে।
সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন; সংবিধানে বলা হয়েছে, প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম হবে ইসলাম। আবার বলা হয়েছে, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টানসহ অন্যান্য ধর্ম পালনে রাষ্ট্র মর্যাদা ও সমঅধিকার নিশ্চিত করবে। এর অর্থ হলো এক ধরনের করুনা।
১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালে গঠিত মুজিবনগর সরকারের ঐতিহাসিক ঘোষণাপত্রের উল্লেখ করে সৈয়দ আনোয়ার বলেন; সেখানে সাম্য মানবিক মূল্যবোধ সামাজিক ন্যায়বিচারকে বাংলাদেশের মূল লক্ষ্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছিল। গত ৫০ বছরে বাংলাদেশ অনেক কিছু অর্জন করেছে। কিন্তু এই তিন লক্ষের একটিও অর্জন হয়নি।
ঐক্য পরিষদের দীর্ঘদিনের দাবি ১৯৭২- এর মূল সংবিধানে ফিরে যাওয়ার দাবিকে সমর্থন করেন অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন। তবে পরিষদের আরেকটি দাবি সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় গঠনের বিরোধিতা করেন তিনি।
সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন ; আপনারাই বলছেন দর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার। ধর্মত আসলে ব্যক্তিগত ব্যাপার। সে নামে কোনো মন্ত্রণালয় কেন হবে? দরকার হলে এ রাষ্ট্রের মানবিক হওয়ার।
সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির চেয়ারপারসন পঙ্কজ ভট্টাচার্য কো-চেয়ারপারসন কাজল দেবনাথ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত উপস্থিত ছিলেন ঐক্য পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক নিমচন্দ্র ভৌমিক উষাতন তালুকদার ও নির্মল রোজারিও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD