1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৪৭ অপরাহ্ন
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৪৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নড়াইলে কালিয়া পুলিশের হাতে জমি জালিয়াতচক্রের ২ সদস্য গ্রেফতার ময়মনসিংহ গফরগাঁও পাগলা থানা এলাকার ইটের ভাটা গুলো চলছে পাগলা প্রেস ক্লাবের নিয়ন্ত্রণে । আশুলিয়ায় বসত বাড়িতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডঃ আরজেএফ’র উদ্যোগে বিশ্ব তথ্য সুরক্ষা দিবস পালিত মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটির পক্ষ থেকে শীত বস্ত্র বিতরন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ নোয়াপাড়া পৌরসভার পরিচিতি ও বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত রংপুরে চুরির অপবাদে দুই শিশুকে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় গ্রেফতার ১ “ যেকারণে বাংলাদেশে ইংরেজি শিক্ষায় সংষ্কার সাধন যুক্তিযুক্ত ঠাকুরগাঁওয়ে রুহিয়াতে দুর্ধর্ষ চুরি, ঠাকুরগাঁওয়ে আলু ক্ষেতে ধনপতি কৃষকের মরাদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ ।

চিরিরবন্দর উপজেলায় স্বতন্ত্র ৮ নৌকা ৪ বিজয়ী

প্রশাসন
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ জানুয়ারি, ২০২২
  • ২১ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার
৫ম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে নৌকার ভরাডুবি। উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামীলীগ ৪জন, স্বতন্ত্র ৮জন প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।
এছাড়াও ইউপি সদস্য পদে ১০৮ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা আসন সদস্যা পদে ৩৬ জন নির্বাচিত হন।
বুধবার (৫ জানুয়ারী) ভোট গ্রহণ শেষে ফলাফল ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তাগণ। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ৫ম ধাপে অনুষ্ঠিত চিরিরবন্দর উপজেলার ১২ ইউনিয়ন পরিষদে বুধবার দিনব্যাপী উৎসবমুখর পরিবেশে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ীরা হলেন- ১নং নশরতপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী মোঃ আব্দুল ওহাব (মাস্টার) অটোরিকশা প্রতিকে ৪ হাজার ৭২৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ নুর-এ-আলম সিদ্দিকী (নয়ন) মোটরসাইকেল প্রতিকে ৪ হাজার ৬২০ হাজার ভোট পেয়েছেন।
২নং সাতনালা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ এনামুল হক শাহ আনারস প্রতিকে ৫ হাজার ২২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ মোটরসাইকেল প্রতীকে ৪ হাজার ৪৮৮ ভোট পেয়েছেন।
৩নং ফতেজংপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ নৌকা প্রতীকে ৮ হাজার ৮০২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ মাসুদ রানা মোটরসাইকেল প্রতিকে ৬ হাজার ১৯০ ভোট পেয়েছেন।
৪নং ঈসবপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আবু হায়দার লিটন নৌকা প্রতিকে ৫ হাজার ৮৯১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ শফিকুল ইসলাম লিটন আনারস প্রতিকে ৪ হাজার ৬৩৫ ভোট পেয়েছেন।
৫নং আব্দুলপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ ময়েন উদ্দীন শাহ্ আনারস প্রতিকে ৯ হাজার ৯৯৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ মোখলেছুর রহমান নৌকা প্রতিকে ৮ হাজার ৫৮ ভোট পেয়েছেন।
৬নং অমরপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ ইকবাল হোসেন কাজী মোটরসাইকেল প্রতিকে ৬ হাজার ৩৩৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ হেলাল সরকার নৌকা প্রতিকে ৫ হাজার ৭৯৯ ভোট পেয়েছেন।
৭নং আউলিয়াপুকুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আব্দুর রহিম মোটরসাইকেল প্রতিকে ৮ হাজার ৯৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটকম প্রতিদ্বন্দী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ হাসিবুল হাসান নৌকা প্রতিকে ৮ হাজার ৪০১ ভোট পেয়েছেন।
৮নং সাঁইতাড়া ইউনিয়নে সন্তোষ কুমার রায় নৌকা প্রতিকে ৫ হাজার ৩১৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ মোকারম হোসেন শাহ্ আনারস প্রতিকে ৫ হাজার ১৭১ ভোট পেয়েছেন।
৯নং ভিয়াইল ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আব্দুর রাজ্জাক শাহ্ চশমা প্রতিকে ৯ হাজার ২৪২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বর্তমান চেয়ারম্যান নরেন্দ্র নাথ রায় নৌকা প্রতিকে ৬ হাজার ৭৯ ভোট পেয়েছেন।
১০নং পুনট্টি ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ নূর-এ কামাল নৌকা প্রতিকে ৯ হাজার ১২৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী মোঃ রেজাউল করিম রেজা আনারস প্রতিকে ৭ হাজার ৭৬৮ ভোট পেয়েছেন।
১১নং তেঁতুলিয়া ইউনিয়নে স্বতন্ত্র মোঃ আজগার আলী আনারস প্রতিকে ৪ হাজার ৯৪৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বর্তমান চেয়ারম্যান সুনীল কুমার সাহা নৌকা প্রতিকে ৪ হাজার ৬০০ ভোট পেয়েছেন।
১২নং আলোকডিহি ইউনিয়নে স্বতন্ত্র মোঃ তাজ উদ্দিন হোসেন শাহ্ আনারস প্রতিকে ৩ হাজার ৯৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মীর্জা লিয়াকত আলী বেগ (লিটন) মোটরসাইকেল প্রতিকে ৩ হাজার ৫৬৯ ভোট পেয়েছেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আলহাজ্ব আব্দুল মালেক এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, “১০৯ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৮০৪ জন সহকারী প্রিজাইডিং ও ১ হাজার ৬০৮ জন পোলিং অফিসার এ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। উপজেলায় নির্বাচন শতভাগ নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ করতে ৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৭২৯ জন পুলিশ ও ১ হাজার ৮৫৩ জন আনসার নিয়োজিত ছিলেন”।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD