1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সখীপুরে স্বামীর আড়াইলাখ টাকা স্বর্ন অলংকার নিয়ে স্ত্রী উধাও ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় সরকারি অধিগ্রহণ হওয়া ভূমির ৪৫ জন মালিককে ৫১ কোটি টাকার চেক হস্তান্তর করেছে ঢাকা জেলা প্রশাসন। বীর মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন তোফা’র রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন নড়াইল ডিবি পুলিশের অভিযানে গাজাসহ গ্রেফতার ১ সখীপুরে দুই ইটভাটার মালিককে জরিমানা ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ২২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন ও স্বজন সমাবেশ। জবি রোভার স্কাউট গ্রুপ এবং রোভার স্কাউট অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের শীতবস্ত্র বিতরণ কাপ্তাই বড়ইছড়ি সাপ্তাহিক বাজারে মাস্কবিহীন অপরাধে ভ্রাম্যমান অভিযানে ১৩ মামলা তানোরে ২শত জন দুস্থ দরিদ্র নারী পুরুষের মাঝে (ভিজিডি) কার্ডের আওতায় চাউল বিতরণ করা হয়েছে! জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে আদালত না থাকায় ৫’শ কিঃ মিঃ দুরে পল্লী বিদ্যুৎ মামলায় হাজিরা দিতে হচ্ছে গ্রাহকদের –ঢাকায় ।

সিরাজদিখানে ইউপি নির্বাচনে জয়ের হ্যাট্রিক সানজিদা’র

প্রশাসন
  • সময় : শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৫৪ বার পঠিত

আরিফ হোসেন হারিছ সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি:

চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার (ইউপি) নির্বাচনে পরপর তিনবার জয় পেয়ে হ্যাট্রিক করলেন মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সানজিদা আক্তার। গত ২৬ ডিসেম্বর জেলার সিরাজদিখান উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে স্থানীয় সরকার ইউপি নির্বাচনের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়, উপজেলার ১১নং মালখানগর ইউনিয়নে টানা তৃতীয়বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সানজিদা আক্তার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত এ প্রার্থী তার ৫ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের পরাজিত করে তৃতীয়বারের মত নির্বাচিত হয়েছেন।

গত রবিবার ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত মালখানগর ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে সানজিদা আক্তার পেয়েছেন ৩৬০৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া প্রতীক নিয়ে তসলিম উদ্দিন শেখ পেয়েছেন ৩১৬৬ ভোট, মো. আনিসুর রহমান (আনাছ মৃধা) স্বতন্ত্র প্রার্থী ( আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৯৬৯ ভোট, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী হাত পাখা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪৫৮ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মামুন আটো রিক্সা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪১৬ ভোট, মো. বিল্লাল খান আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৬২ ভোট । চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয়বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে হাট্টিক করলেন সানজিদা আক্তার। দশম স্থানীয় সরকার (ইউপি) নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জের ৬টি উপজেলার মধ্যে একমাত্র মহিলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

সানজিদা আক্তার ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী হয়ে প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং জেলা সর্বপ্রথম নির্বাচিত মহিলা চেয়ারম্যান এর রেকড করেন। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে দ্বিতীয় বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। ক্লিন ইমেজের মানুষ ও তৃণমূল পর্যায়ে ব্যাপক জনপ্রিয় এই চেয়ারম্যানকে আর পেছন ফিরে দেখতে হয়নি। গত ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সানজিদা আক্তার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী ৫ প্রার্থীকে পরাজিত করে তৃতীয়বারের মত নির্বাচিত হয়েছেন। জেলার একমাত্র মহিলা চেয়ারম্যান সানজিদা আক্তার পরপর তিনবার নির্বাচিত হয়ে হ্যাট্রিক বিজয়ের রেকড গড়েন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সানজিদা আক্তার বলেন, মালখানগর ইউনিয়ন বাসীর সাথে আমার পরিবারের আত্মার সম্পর্ক, আমার শ্বশুর মরহুম আব্দুস সামাদ দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালে মালখানগর ইউনিয়নের রিলিফ কমিটির চেয়ারম্যান হিসাবে ১৯৭৪ সাল পযর্ন্ত দায়িত্ব পালন করেন, আমার স্বামী হাজী মহিউদ্দিন আহমেদ ১৯৮৪ সাল থেকে ২০০৩ সাল পযর্ন্ত পরপর ৫বার মালখানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন এই ইউনিয়নের প্রতিটি মানুষের সাথে আমাদের সম্পর্ক যুগের পর যুগ ধরে। বিগত ২টি নির্বাচনে তাঁরা আমাকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছে। চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন কালে কোনো প্রকার দুর্নীতি বা স্বজনপ্রতি,ক্ষমতার অপব্যবহার করিনি। সদ্য অনুষ্ঠিত নির্বাচনে দেশরত্ন শেখ হাসিনা আমাকে আওয়ামীলীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন দেন আমি নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেছি, ইউনিয়নবাসী আমাকে ভোট দিয়ে তৃতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত করায় আমি ইউনিয়নবাসীর কাছে চির কৃতজ্ঞ। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ইউনিয়নে সেবা নিতে আসা সকল শ্রেণির মানুষদের যার জন্য যতটুকু করার ছিলো তাদের জন্য সাধ্যমতো করার চেস্টা করেছি। শুধু আমি নই আমার পরিষদের সকলকে নিয়ে পরিষদকে একটি সেবামূলক ও হয়রানী মুক্ত প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে চেস্টা করেছি। আগামীতেও আমার এই ধারা অব্যাহত রাখার চেস্টা করবো। সকল ভালো কাজে আমার পরিষদের সকল সদস্যসহ প্রশাসন ও ইউনিয়নবাসীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি। কারণ একক ভাবে কোন কিছুই করা সম্ভব নয়। তাই সুন্দর ভাবে এই ইউনিয়নকে পরিচালনা করতে ও পরিষদের সকলকে নিয়ে আগামীতে একসঙ্গে পথ চলতে আমি পুরো ইউনিয়নবাসীসহ সকলের কাছে সার্বিক সহযোগিতা প্রার্থনা করছি। ইনশাআল্লাহ্‌ সবাইকে সাথে নিয়ে ইউনিয়নের চলমান উন্নয়নের ধারাকে অব্যহত রেখে এই ইউনিয়কে একটি মডেল ইউনিয়ন হিসাবে গড়ে তুলবো। উল্লেখ তাঁর স্বামী হাজী মহিউদ্দিন আহমেদ পরপর ৫বার মালখানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন, এবং পরপর ৩ বার নির্বাচিত সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। ৩ সন্তানের জননী সানজিদা আক্তারের বড় ছেলে আনিসুর রহমান রিয়াদ বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, একমাত্র মেয়ে একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত, ছোটছেলে রিফাত আহমেদ একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করছেন পাশপাশি স্থানীয় ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত। #

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD