1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সখীপুরে স্বামীর আড়াইলাখ টাকা স্বর্ন অলংকার নিয়ে স্ত্রী উধাও ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় সরকারি অধিগ্রহণ হওয়া ভূমির ৪৫ জন মালিককে ৫১ কোটি টাকার চেক হস্তান্তর করেছে ঢাকা জেলা প্রশাসন। বীর মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন তোফা’র রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন নড়াইল ডিবি পুলিশের অভিযানে গাজাসহ গ্রেফতার ১ সখীপুরে দুই ইটভাটার মালিককে জরিমানা ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ২২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন ও স্বজন সমাবেশ। জবি রোভার স্কাউট গ্রুপ এবং রোভার স্কাউট অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের শীতবস্ত্র বিতরণ কাপ্তাই বড়ইছড়ি সাপ্তাহিক বাজারে মাস্কবিহীন অপরাধে ভ্রাম্যমান অভিযানে ১৩ মামলা তানোরে ২শত জন দুস্থ দরিদ্র নারী পুরুষের মাঝে (ভিজিডি) কার্ডের আওতায় চাউল বিতরণ করা হয়েছে! জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে আদালত না থাকায় ৫’শ কিঃ মিঃ দুরে পল্লী বিদ্যুৎ মামলায় হাজিরা দিতে হচ্ছে গ্রাহকদের –ঢাকায় ।

খাদিমপাড়ায় সরকারি ভূমি থেকে মাটি বিক্রি বন্ধে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অনুলিপি ।

প্রশাসন
  • সময় : রবিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১২৭ বার পঠিত

সিলেট প্রতিনিধিঃ- সিলেটের সদর উপজেলার ৪নং খাদিমপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে চলছে সরকারি ভূমি ও কৃষি ভূমি থেকে মাটি ব্যবসায়ীদের মাটির বিক্রির মহা-তান্ডব। কোন এক অদৃশ্য কারণে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে যার ফলে দিন দিন বেপরোয়া হারে বাড়ছে এই ইউনিয়নে মাটি বিক্রির মহোৎসব। যার ফলে প্রতিবছর নষ্ট হচ্ছে সরকারি ভূমি ও কৃষি ভূমি। ৪নং খাদিমপাড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডে প্রকাশ্যে দিবালোকে চলছে সরকারি ভূমি ও কৃষি ভূমি থেকে মাটি বিক্রি ও মাটি ব্যবসায়ীদের তান্ডবলীলা।

আর একই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের হাতুড়া চুয়াবহর বটেশ্বর মৌজার সরকারি ভূমি ও কৃষি ভূমি থেকে অবৈধভাবে মাটি বিক্রি বন্ধের জন্য আবেদন জানিয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অনুলিপি প্রদান ​করেছেন হাতুড়া চুয়াবহর বটেশ্বর এলাকার সৈয়দ আরজান আলীর পুত্র সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন শাহপরান (রহ.) থানা শাখার সভাপতি, সৈয়দ রুহুল আমিন।

রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) হাতুড়া চুয়াবহর বটেশ্বর মৌজার সরকারি ভূমি ও কৃষি ভূমি থেকে অবৈধভাবে মাটি বিক্রি বন্ধের জন্য সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে এই লিখিত অভিযোগের অনুলিপি সিলেট জেলা প্রশাসক, সিলেট বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর, সিলেট সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি), সিলেট মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার, অফিসার ইনচার্জ শাহপরান (রহ.) থানা বরাবরে প্রদান করেন তিনি।

অনুলিপি সুত্রে মাটি ব্যবসায়ীরা হচ্ছেন- চুয়াবহর বটেশ্বর মৌজার হাতুড়া এলাকার মৃত সাজ্জাদ আলীর পুত্র কামাল উদ্দিন (৪২), একই এলাকার মৃত ফরিজ আলীর দুই পুত্র সুহেল আহমদ (৪০), সুফিয়ান আহমদ (৩০), একই এলাকার আতাউর রহমানের পুত্র সাধারণ সম্পাদক ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের রেজান উদ্দিন (৪২), একই এলাকার মৃত বশির উদ্দিনের পুত্র আশরাফ উদ্দিন রাজিব (৩৫) ও একই এলাকার মৃত রিয়াছদ আলীর পুত্র ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার এনামুল হক এনাম (৫০)সহ আরো ২০/২৫ জনের মাটি ব্যবসায়ী চক্র।

অনুলিপি সুত্রে জানা গেছে- সিলেট সদর উপজেলার ৪নং খাদিমপাড়া ইউনিয়নের চুয়াবহর বটেশ্বর মৌজায় প্রায় (১,৯৮,৭২০ শতক বা একর) কৃষি ক্ষেতের ভূমি রয়েছে। তার মধ্যে এস,এ (১০৬১, ১০৬৩, ১০৭৮, ১০৮৪, ১০৯২, ২১০৫, ২১১০, ২১১২ ২১১৪) নং দাগে (৮১৫৫ শতক বা একর) ভূমি বাংলাদেশ সরকারের মালিকানাধীন। যাহার- শ্রেণী খাল-বিল-নালা ইত্যাদি আর অবশিষ্ট (১,৯০,৫৬৫ শতক বা একর) ভূমি বিভিন্ন মালিকানাধীন রয়েছে। বিগত ৫ বছর যাবৎ উল্লেখিত মাটি ব্যবসায়ী চক্র সরকারি খাল-বিল-নালা সহ বিভিন্ন মালিকানাধীন ভূমি থেকে তাদের অদৃশ্য পেশীশক্তির বলে এক্সেভের (ভ্যাকু) ও ছোট বড় ড্রাম্প ট্রাক দিয়ে মাটি কেটে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছে। আর ২০২০ সালে এদের বিরুদ্ধে সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অভিযান চালিয়েছেন। তখন তাদের উপস্থিত না পেয়ে কোন জরিমানা করতে পারেন নি তবে সরকারি যে ভূমির মাটি এই চক্র বিক্রি করেছিলো সে ভূমিগুলো পূনরায় ভরাট করে দেয়ার জন্য তিনি নির্দেশও প্রদান করেছিলেন। কিন্তু ওই ভূমিতে এখনো মাটি ভরাট করেনি এই চক্র। কৃষি জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি বিক্রিতে সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকলেও তা মানতে নারাজ এই সংবদ্ধ মাটি ব্যবসায়ী চক্র। এই চক্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে বিভিন্ন হয়রানির স্বীকার হতে হয় সাধারণ জনগনদের। তাই এই চক্রের বিরুদ্ধে ভয়ে কথা বলতে সাধারণ জনগণ এখন নারাজ।

চলতি ডিসেম্বর মাস থেকে পূনরায় প্রতিদিন রাত ৯টার পর হইতে ২টি এক্সেভেটর (ভ্যাকু) দিয়ে সরকারি ভূমির বিল-নালা ও কিছু মালিকানাধীন কৃষি ভূমি থেকে সরকারি অনুমতি ছাড়া অবৈধভাবে (২৫/৩০টি) ছোট-বড় ড্রাম্প ট্রাক দিয়ে অনায়াসে বিভিন্ন স্থানে মাটি বিক্রি করছে এই মাটি ব্যবসায়ী চক্র। যার ফলে হাতুড়া এলাকার কৃষি ভূমি শুন্য হতে চলছে। প্রতিদিন গ্রামের রাস্তা দিয়ে মাটি বুঝাইকৃত ডাম্প ট্রাকের চলাচলের কারণে পাকা রাস্তা বিনষ্ট হচ্ছে ও আশেপাশের বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থী-জনসাধারণের চলাচলে বিগ্ন হচ্ছে এবং অতিরিক্ত ধুলায় পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে। এছাড়াও ধুলোবালির কারণে বহু লোক এখন শ্বাসকষ্ট রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। প্রতিদিন রাতে অতিরিক্ত শব্দ দূষণের কারণে হাতুড়া, শ্যামপুর, পুরানবাড়ি ও কেওয়া এলাকার জনসাধারণ অনিদ্রায় ভুগছেন।

একজন মানবাধিকার কর্মী হিসেবে সৈয়দ রুহুল আমিন সাধারণ মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্টাকল্পে বিগত (২৪ ডিসেম্বর) এই চিহ্নিত মাটি ব্যবসায়ী চক্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে এই মাটি ব্যবসায়ী চক্র তাকে যে কোন মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোসহ প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে।

সবর্শেষে সৈয়দ রুহুল আমিন এই চিহ্নিত মাটি খেকো চক্রের হাত থেকে সরকারি ভূমি ও কৃষি ভূমি রক্ষা এবং সাধারণ মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্টাকল্পসহ এই সংবদ্ধ চিহ্নিত মাটি খেকো চক্রের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তার নিকট আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD