1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:০৩ পূর্বাহ্ন
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:০৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সড়ক দুর্ঘটনায় মেধাবী স্কুল ছাত্রীর উমামা নিহত। নবনিযুক্ত আ’লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে মেয়র সাইদুর-এর ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন! আবুল বাশার সুজন” গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি, ডাঃ জালাল উদ্দীনকে দেখতে যান! ইসলামি আন্দোলনের ৫ প্রার্থী বৈধ দুর্নীতি দমন কমিশন অর্থ-পাচারে জড়িত ২৯ ব্যক্তি ও ১৪ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে তালিকা দাখিল করেছেন! মোরেলগঞ্জ ক্লিনিক মালিকের ঝুলন্ত মরাদেহ উদ্ধার। নড়াইলে মাসিক কল্যাণ সভায় শ্রেষ্ঠ পুলিশ অফিসারদের পুরস্কৃত করলেন এসপি প্রবীর কুমার রায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইসলামী জলছায় জাকের পার্টি চেয়ারম্যান ফেৎনা সৃষ্টিকারীরা ইসলামের অনুসারী নয় ৷ সাভার উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে ৷ সাভারে অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী গ্রেফতার

আরব্রো ফার্মার ডিরেক্টর সৌরভ অরোরা জানিয়েছেন, “পুদিনা পাতা মিন্টের ক্যালোরি খুব কম, প্রোটিন আর ফ্যাটের পরিমাণও খুব কম ।

প্রশাসন
  • সময় : শুক্রবার, ৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪৩ বার পঠিত

ডালিয়া আল মীম বিশেষ প্রতিনিধিঃ
আরব্রো ফার্মার ডিরেক্টর সৌরভ অরোরা জানিয়েছেন, “পুদিনা পাতা মিন্টের ক্যালোরি খুব কম, প্রোটিন আর ফ্যাটের পরিমাণও খুব কম । তবে এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, সি এবং বি–কমপ্লেক্স আছে যা ত্বকের স্বাস্থ্য বৃদ্ধি করে এবং ইমিউনিটিও বাড়ায় । পুদিনা পাতার আরও একটি পুষ্টিগুণ হল এটিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন, পটাসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজ আছে, যা হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বাড়ায় এবং মস্তিষ্কের ক্রিয়ার বিকাশ ঘটায় ।

পুদিনা পাতার দশটি গুণাগুণ বর্ণনা করা হল, যা সকলেরই জানা দরকার :

হজমে সাহায্য করে – পুদিনা পাতায় প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস রয়েছে, মেন্থল আর ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস রয়েছে, যা উৎসেচকগুলিকে সাহায্য করে খাবার হজম করতে । পুদিনা পাতায় থাকা এসেনশিয়াল অয়েলের শক্তিশালী অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল এবং অ্যান্টিসেপটিক গুণাগুণ রয়েছে, যা পেটের ক্র‌্যাম্পকে উপশম করতে এবং অ্যাসিডিটি ও পেট ফাঁপা কমাতে সাহায্য করে ।

অ্যাস্থমা সারায়– নিয়মিত পুদিনা পাতা সেবন করলে বুকে জমা সর্দি দূর হয় । মিন্টের মেথানল ‘ডিকনজেসট্যান্ট’ হিসাবে কাজ করে, যা ফুসফুসে জমা হওয়া মিউকাসকে নরম করতে সাহায্য করে এবং পাশাপাশি নাকের ফুলে ওঠা মেমব্রেনগুলিকেও সংকুচিত করে দেয়, যাতে সহজে শ্বাস নেওয়া যেতে পারে । পুদিনা সেবনের আগে নিশ্চিতভাবে খেয়াল রাখবেন যেন কখনওই এটা ওভারডোজ় না হয় । কারণ তা হলে কিন্তু নাকের এয়ার প্যাসেজের সমস্যা দেখা দেবে ।

মাথাব্যথার উপশম করে– পুদিনায় মেন্থল রয়েছে, যা মাংসপেশীকে বিশ্রাম করতে সাহায্য করে এবং ব্যথারও উপশম করে । কপালে এবং মাথার ‘টেম্পল’ অংশে পুদিনা পাতার রস লাগালে মাথাব্যথা কমে । তাছাড়াও পুদিনা দিয়ে তৈরি বাম বা পুদিনা তেল মাথাব্যথা সারাতে কার্যকরী ।

ত্বকের স্বাস্থ্য ভাল করে– পুদিনা পাতার প্রদাহনিরোধক এবং অ্যান্টি–ব্যাকটিরিয়াল গুণাগুণ রয়েছে যা ব্রণ, পিম্পল সারাতে কাজে লাগে । পুদিনা পাতায় প্রচুর পরিমাণে স্যালিসাইলিক অ্যাসিড আছে, যা ব্রণ দূর করে । তাছাড়া এটি ত্বক পরিস্কার করতেও ভাল কাজে আসে । পুদিনার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট গুণাগুণও রয়েছে যা শরীর থেকে ফ্রি র‌্যাডিক্যাল দূর করে ত্বককে পরিষ্কার এবং তরুণ বানাতে সাহায্য করে । আর যেভাবে পুদিনা পাতা ত্বককে স্বাস্থ্যবান করে তোলে , তা হল এটি ত্বকের আর্দ্রতা দরে রাখে, মরা কোষ পরিষ্কার করে দেয় এবং ত্বক থেকে ময়লাও দূর করে দেয় । ফলে ত্বক টোনড এবং উজ্জ্বল লাগে ।

মানসিক চাপ ও অবসাদ কমায়– পুদিনার অন্যতম উপকারিতা হল এটি অ্যারোমাথেরাপি বা গন্ধ চিকিৎসায় বহুল ব্যবহৃত হয় । পুদিনা তথা মিন্টের কড়া অথচ সজীব গন্ধ মানসিক চাপ কমাতে এবং শরীর ও মনকে তরতাজা করতে সাহায্য করে । পুদিনার ‘অ্যাপপটোজেনিক’ গুণাগুণ রক্তে কর্টিসলের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণ করে । এই বিষয়টিই স্ট্রেস তথা মানসিক চাপ কমানোর শরীরের স্বাভাবিক প্রক্রিয়া । পুদিনা এসেনশিয়াল অয়েলের ঘ্রাণ নিলে সঙ্গে সঙ্গে রক্তে সিরোটোনিন নিঃসৃত হয়, যা একটি নিউরোট্রান্সমিটার এবং এটি মানসিক চাপ ও অবসাদ হ্রাস করতে সুপরিচিত ।

ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে– অ্যারোম্যাটিক হার্ব অর্থাৎ গন্ধযুক্ত গাছগাছড়া, পুদিনা ওজন কমাতেও সাহায্য করে । পুদিনায় থাকা এসেনশিয়াল অয়েল পাচনকারী উৎসেকচকগুলিকে উদ্দীপ্ত করে যাতে ‘বাইল’–এর প্রবাহ বাড়ে এবং হজমশক্তি ভাল হয় । এটি খাবার থেকে সক্রিয়ভাবে পুষ্টিগুণ শোষণেও সাহায্য করে । যখন শরীর পুষ্টি শোষণ এবং আত্তীকরণে সক্ষম হয়, তখন বিপাকের হার বাড়ে । বিপাক বাড়লে ওজন হ্রাস পায় ।

সাধারণ সর্দি-কাশি সারায়– যদি কেউ সর্দি-কাশিতে ভোগেন এবং শ্বাস নিতে অসুবিধা হয়, তাহলে তাদের জন্য পুদিনা পাতা হল সেরা রেমেডি । বেশিরভাগ ভেপার রাব এবং ইনহেলারেই মিন্ট থাকে । মিন্ট প্রাকৃতিকভাবে গলা এবং নাকে জমে থাকা সর্দি দূর করে, ব্রঙ্কাইটিস সারায় এবং ফুসফুসে জমে থাকা সর্দি দূর করে । রেসপিরেটরি চ্যানেলগুলি ছাড়াও মিন্ট বার বার কাশির সমস্যাকেও দূর করে ।

বমিভাব উপসর্গ কমিয়ে দেয়– পুদিনা বমি বমি ভাব লাঘব করতে খুব সক্রিয়। তাই প্রায়ই একে মর্নিং সিকনেসের চিকিৎসায় ব্যবহার করা হয় । পুদিনার কয়েকটা পাতা খেয়ে নেওয়া বা সকালে গন্ধ শোঁকাও অন্তঃস্বত্ত্বা মহিলাদের বমি বমি ভাবের সমস্যা মেটাতে সাহায্য করে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ খোলা নিউজ বিডি ২৪
Themes Customize By Theme Park BD