1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
করোনার প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা - খোলা নিউজ বিডি ২৪
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:১৩ অপরাহ্ন
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:১৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পলাশবাড়ীতে মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে গভর্নিং বডির তিন সদস্যের সংবাদ সম্মেলন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার ‘গাভী’ পেয়ে খুশি নাটোরের সিংড়া উপজেলার ৩৯ টি আদিবাসী পরিবার কুড়িগ্রামে ভার্মী কম্পোষ্ট উৎপাদন নিয়ে প্রশিক্ষণ ও আলোচনা “ময়মনসিংহ পুলিশ হাসপাতালে পুলিশ সদস্যদের জন্য ডায়াগনস্টিক টেস্ট কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন” সদ্য পদন্নোতি প্রাপ্ত সিআইডি’র কর্মকর্তাদের র‍্যাংক ব্যাজ পরিধান করান সিআইডি প্রধান পটুয়াখালীতে ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে শহীদ মিনার নির্মান কাজের ভি‌ত্তিপ্রস্থর স্থাপন ধামইরহাট সীমান্ত প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন ময়মনসিংহের গফরগাঁও অধিকাংশ ইটভাটায় পোড়ানো কাঠ শরীয়তপুর পৌরসভার স্টাফের ওপর হামলার অভিযোগ ২ বছর ভোগান্তীর পর সংষ্কার হচ্ছে গৌরীপুর- শ্যামগঞ্জ সড়ক

করোনার প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা

প্রশাসন
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৪১ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক:
মহামারী করোনা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ি এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের এমনই অভিযোগ। ২২,এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) গণমাধ্যম কর্মীদের ব্যবসায়ীক নেতারা জানান, গত বছর দীর্ঘ লকডাউনে ব্যবসায় অনেক আর্থিক ক্ষতি হইছে সেই লোকসান এখনো পুষিয়ে উঠতে পারেনি ব্যবসায়ীরা। এছারা দেশে দীত্বিয় বারের মতো এবছর ১৪ এপ্রিল থেকে টানা সাতদিন কঠোর লকডাউন থেকে বাড়িয়ে তা ২৮ এপ্রিল মধ্যে রাত অবধি বাড়ানো হয়েছে। এসময় সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান, পোশাক কারখানা সহ খাদ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সহ কিছু শিল্প কারখানা চালু থাকলেও হাটবাজার চলছে সিমিত পরিসরে। এছাড়া বন্ধ রয়েছে স্কুল কলেজ, দোকানপাট, সপিংমল ও গণপরিবহন। কোনাবাড়ি নতুন বাজার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের সভাপতি মোঃবেলায়েত হোসেন ও ব্যবসায়ী মোঃআব্দুল আলিম, বাদশা মিয়া, মোঃরুবেল মিয়া,মোঃনূরু মিয়া, মোঃকামাল হোসেন জানান সরকার পোশাক কারখানার মতো তাঁদেরও স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবসা করার সুযোগ করে দিতে সরকারের কাছে আহবান জানান। তারা আরো বলেন ব্যবসায়ীরা বছরে দুই ঈদকে সামনে রেখে সারা বছরের প্রায় ষাট ভাগ বেচাকেনা করে থাকেন। ঈদকে কেন্দ্র করে লক্ষ লক্ষ টাকার কাপর কিনে টেইলার্সের মাধ্যমে পোশাক তৈরি করেন। ইতিমধ্যে তৈরি পোশাক তৈরি করতে না পারায় লোকসানের আশংকা করছেন ব্যবসায়ীরা। এছাড়া গণপরিবহন চলাচল না করায় কোন পাইকার আসতে পারছেনা। এতকরে লকডাউন এর পূর্বে তৈরি করা পোশাক বিক্রয় করতে না পারায় মূলধন আটকে আছে এসব ব্যবসায়ীদের।এছাড়া
লকডাউনে কাজ করতে না পেরে অসংখ্য শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যে অনেকে পরিবার নিয়ে অতিকষ্টে দিনাতিপাত করছে। এছাড়া ব্যবসায়ীদের দোকান ভাড়া ও এনজিও ঋণের চাপে দিশেহারা হয়েপড়েছে। ব্যবসায়ীদের দাবী সরকার বৈষম্য দূর করে ব্যবসায়ে সমতা তৈরি করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবসার করার জন্য জোর আবেদন জানান ক্ষতিগ্রস্ত এসব ব্যবসায়ীরা।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা