1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
শিশু সাঈদ হত্যায় তিন আসামির ফাঁসি হাইকোর্টে বহাল - খোলা নিউজ বিডি ২৪
রবিবার, ০৪ জুন ২০২৩, ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ০৪ জুন ২০২৩, ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নড়াইলে ৩৯ টি ল্যাপটপ ও বিপুল পরিমাণ চোরাই মালামাল উদ্ধারের স্বীকৃতিস্বরূপ আইজিপি অর্থ পুরস্কার ঠাকুরগাঁওয়ে কৃষি যন্ত্রাঅংশের মাধ্যমে বোরো ধান কাটা মাড়াই করছেন ময়মনসিংহের গৌরীপুরে গীতা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত মধ্যরাতে যুবক খুন, তদন্তে মাঠে পুলিশ পারফরমেন্স বেজড গ্র্যান্টস ফর সেকেন্ডারি ইন্সটিটিউশন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহীনা বেগমের মায়ের ইন্তেকাল সিআইডি প্রধানের সাথে Mr. Ryu কান্ট্রি ডিরেক্টর,KOICA, বাংলাদেশ এর সাক্ষাৎ জামালপুরে জমি বেদখলের পুনরুদ্ধারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন পটুয়াখালীতে ব্লাস্টের আয়োজনে অধিকার সচেতনতা মূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে পুলিশ সুপারের প্রত্যক্ষ তদারকিতে সাদুল্যাপুরে গুলি ভর্তি বিদেশী পিস্তল সহ যুবক আটক

শিশু সাঈদ হত্যায় তিন আসামির ফাঁসি হাইকোর্টে বহাল

প্রশাসন
  • সময় : মঙ্গলবার, ২২ জুন, ২০২১
  • ১৪৪ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :
নগরীর শাহ মীর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র শিশু আবু সাঈদ হত্যা মামলায় বিচারিক আদালতের দেয়া তিন আসামির ফাঁসির আদেশ বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট।
মঙ্গলবার বিচারপতি সহিদুল করিম ও বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ ডেথ রেফারেন্স ও আসামিদের আপিল খারিজ করে এ আদেশ দেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- বরখাস্তকৃত পুলিশ কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুল, সিলেট জেলা ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাকিব ও পুলিশের কথিত সোর্স আতাউর রহমান গেদা।
এ মামলায় আদালতে পুতুলের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির। রাকিবের পক্ষে সাঈদ আহমেদ রাজা এবং আতাউর রহমানের পক্ষে ছিলেন মো. সিদ্দিকুর রহমন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বশির আহমেদ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১১ মার্চ সিলেট নগরীর শাহ মীর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র আবু সাঈদ (৯) অপহৃত হয়। এর তিনদিন পর ১৪ মার্চ নগরীর ঝর্ণারপাড় সোনাতলা এলাকায় পুলিশ কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুলের বাসার ছাদের চিলেকোঠা থেকে আবু সাঈদের বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
একই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর এ মামলায় ৪ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন কোতোয়ালি থানার তৎকালীন ওসি (তদন্ত) মোশাররফ হোসেন। চার্জশিটে এ তিনজন ছাড়াও ওলামা লীগ নেতা মাহিব হোসেন মাসুমকে আসামি করা হয়।

এ মামলায় দ্রুত বিচার শেষে ওই বছরের ৩০ নভেম্বর আসামি মাসুমকে খালাস দিয়ে বাকি ৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেন সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আব্দুর রশিদ। পরে মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে আসে। অপরদিকে আসামিরাও আপিল করেন। সব পক্ষকে শুনানি নিয়ে আদালত বিচারিক আদালতের রায় বহাল রাখল।
নিহত আবু সাঈদ সিলেট নগরীর রায়নগর শাহ মীর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ও রায়নগর দর্জিবন্দ বসুন্ধরা ৭৪ নম্বর বাসার আব্দুল মতিনের ছেলে। তাদের গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার এড়ালিয়া বাজারের খশিলা এলাকায়।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা