1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
কালিয়াকৈরে ভরাডুবি নৌকায় যে কারণে । - খোলা নিউজ বিডি ২৪    
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৩৩ অপরাহ্ন
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৩৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ভোলার আলোচিত মাদক কারবারি বিয়ারসহ আটক নাগেশ্বরীতে ২০০ পরিবারকে এক মাসের শুকনো খাবার বিতরণ পাঁচবিবি গোহাটি আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওঃ আঃ গফুর সাহেবের ইন্তকাল মুক্তাগাছায় কৃষকের মাঠে যুবকের লাশ ‘সেবার ব্রতে চাকরি’—এই শ্লোগানে শেরপুরে টিআরসি নিয়োগ কার্যক্রমের ৩ য় দিন সম্পন্ন পটুয়াখালী পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ ; প্রচারণা শুরু নড়াইল ডিবি পুলিশের অভিযানে ৯৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেফতার ৩ হারিয়ে যাওয়া ২০টি মোবাইল নড়াইলে প্রকৃত মালিকদের নিকট হস্তান্তর শিবচরের এক্সপ্রেসওয়েতে বাস ট্রাকের সংঘর্ষ নিহত ৪ কালিয়াকৈরে ফার্মেসী ভাঙচুর ইউএনও’র বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের মানববন্ধন

কালিয়াকৈরে ভরাডুবি নৌকায় যে কারণে ।

প্রশাসন
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১২৭ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ মোঃ বিল্লাল হোসেন সাজু
একজন হেভিওয়েট মন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকায় তৃতীয় ধাপে পৌর ও ইউপি নির্বাচনে চার কারণে ব্যাপক ভরাডুবি হয়েছে। একটি পৌরসভা ও ছয়টি ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থীদের পরাজয়ের কারণে আওয়ামীলীগের দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে হতাশা করে দিয়েছে। তবে দলীয় নেতাকর্মী,সচেতন মহল নৌকার প্রার্থীর পরাজয়ের জন্য চারটি কারণ দেখিয়েছেন। বিশেষ করে কালিয়াকৈর পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার মেয়র প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাসেল তফসিল ঘোষনার আগে থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমানের কর্মীদের মারধর, হুমকি ধামকি দেন। এসব চিত্র সাধারণ ভোটারের মনে শঙ্কা তৈরি হয়। দ্বিতীয়ত নিজ দলের পদধারী নেতাকর্মীদের সঠিক সময়ে নির্বাচনে না নামাতে পারা। তৃতীয়ত- রেজাউল করিম রাসেল নিজের ভোটার ইউনিয়ন থেকে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার কয়েকদিন আগে ট্রান্সফার করে পৌরতে নিয়ে আসা। চতুর্থত-নিজে নৌকার টিকিটে পৌর নির্বাচন করলেও বড় ভাই সাইফুজ্জামান সেতু পাশের চাপাইর ইউনিয়ন পরিষদে নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহি চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার কারণে উপজেলা, পৌর ও ইউপি আওয়ামী লীগের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। যা নির্বাচন চলাকালীন সময়ে মিটমাট করতে ব্যর্থ হন। সচেতন মহলের ধারণা এই চারটি কারণ ছাড়াও পৌর নির্বাচনে নৌকার মাঝি রেজাউল করিম রাসেল ক্ষমতার অপব্যবহার, দাম্ভিকতা ও অহংকারও সাধারণ ভোটারদের কাছে ছিল চোখে পড়ার মত। আওয়ামী লীগের দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, গেল ১২-১৩ বছর আগে থেকেই জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিকদার মোশারফ হোসেন ও সাংগঠনিক সম্পাদক আকবর আলী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সরকার মোশারফ হোসেন জয় ও সাধারণ সম্পাদক সিকদার জহিরুল ইসলাম জয় পৌরবাসীর পাশে থেকে নির্বাচনী প্রচার প্রচারনা চালালেও নৌকার টিকিট রেজাউল করিম রাসেল হাতিয়ে নেন। ফলে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মেয়র মজিবুর রহমান ৬ হাজারের বেশি ভোট পেয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে মেয়র নির্বাচিত হন। অপরদিকে সাতটি ইউনিয়নের মধ্যে ছয়টিতে নৌকার প্রার্থীর ভরাডুবি হয়। একটিতে নৌকার প্রার্থী বিজয় লাভ করেন। আটবাহ ইউপিতে নৌকার প্রার্থী ইব্রাহিম খালিদকে হারিয়ে নৌকার বিদ্রোহি প্রার্থী শাখাওয়াত হোসেন শাকিল, চাপাইর ইউপিতে নৌকার প্রার্থী লায়ন আহসান হাবিবকে হারিয়ে বিদ্রোহী পরাজিত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম রাসেলে বড় ভাই সাইফুজ্জামান সেতু, বোয়ালী ইউপিতে নৌকার প্রার্থী শাহাদতকে হারিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী আফজাল হোসেন, মধ্যপাড়া ইউপিতে নৌকার প্রার্থী আতাউর রহমানকে হারিয়ে বিদ্রোহী সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সুত্রাপুর ইউপিতে নৌকার প্রার্থী সুলতান আকম্দকে হারিয়ে বিএনপি প্রার্থী সোলাইমান কবীর, ঢালজোড়া ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী ইদ্রিসুর রহমানকে হারিয়ে বিদ্রোহি প্রার্থী ইছামউদ্দিন বিজয় লাভ করেন। এদিকে ফুলবাড়িয়া ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী বিপুল ভোটে বিএনপির প্রার্থী জাকিরুল ইমলামকে পরাজিত করেন। পরাজিত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম রাসেল জানান, দলীয় নেতাকর্মীরা আমাকে হারাতে পারেনি। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীককে হারিয়ে বিজয় উল্লাস করছে কিছু দলীয় নেতাকর্মীরা। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ মুরাদ কবীর জানান, দলীয় মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম রাসেলের বড় ভাই সাইফুজ্জামান সেতু তার ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহি প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কারণসহ আরো তিন-চারটি কারণে পৌর নির্বাচনে প্রভাব পড়ায় নৌকার ভরাডুবি হয়েছে বলে মনে করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা