1. admin@kholanewsbd24.com : admin :
অভয়নগরে জনপ্রতিনিধির যোগসাজসে জীবিতকে মৃত দেখিয়ে ওয়ারিশ সনদ প্রদান - খোলা নিউজ বিডি ২৪    
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জয়পুরহাট র‌্যাব-৫ কর্তৃক ৭২কেজি গাঁজাসহ মাদক সম্রাট মনির গ্রেপ্তার ময়মনসিংহের অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোঃ মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম পদকে ভূষিত হয়েছেন পাঁচবিবিতে এক স্কুল শিক্ষকের বেশ কয়েকটি মেহগনি গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা জামালপুরে রুই মাছের পূর্ণাঙ্গ জিনোম সিকোয়েন্সিং কাশিমপুর থানা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ মোশাররফ মৃধার ইন্তেকাল ঠাকুরগাঁও জমে উঠেছে জেলা পরিষদ নির্বাচন ঠাকুরগাঁওয়ে “আত্মকথন” শীর্ষক ভিডিওচিত্র সংকলনের উদ্বোধনী বেলকুচিতে দু বছরেও হয়নি মরিয়ম হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন,মামলা ডিবিতে স্থানান্তর “ধউর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়”র বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত পুলিশের সর্বোচ্চ পদক পেলেন লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান

অভয়নগরে জনপ্রতিনিধির যোগসাজসে জীবিতকে মৃত দেখিয়ে ওয়ারিশ সনদ প্রদান

প্রশাসন
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১৩৫ বার পঠিত

যশোর জেলা প্রতিনিধি (আশরাফুল ইসলাম বাবু)

যশোরের অভয়নগরে জনপ্রতিনিধির যোগসাজসে জীবিতকে মৃত্য দেখিয়ে ও দুই ছেলের নাম বাদ রেখে ওয়ারেশ কায়েম সনদ প্রদান করার ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার ১নং প্রেমবাগ ইউনিয়ন চাপাতলা গ্রামে মৃত হরিচরন শীলের ছেলে দুলাল চন্দ্র শীলকে মৃত দেখিয়ে ও তার অপর দুই ছেলেকে বাদ দিয়ে চাঁর জনকে ওয়ারেশ করে গত ইং-০৮ জুলাই ২০২০ তারিখ চেয়ারম্যান ও সচিব স্বাক্ষরকৃর্ত এই ওয়ারেশ কায়েম সনদ প্রদান করা হয়। স্থানীয়দের বরাদ দিয়ে জানা যায়, কয়েক বছর আগে দুলাল চন্দ্র শীল তার দুই ছেলে মিন্টু শীল ও চঞ্চল শীলকে সাথে নিয়ে কাশ্যপ পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে গেলে তাদের তিন জনের অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে অন্যান্য শরিক ছেলে কৃষ্ণ পদ শীল, দেবদাস শীল, মেয়ে কবিতা রানী শীল, দুলালের স্ত্রী অমিয় রানী শীল মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের যোগসাজসে এই ওয়ারেশ কায়েম সনদ দিয়ে দুলালের রেখে যাওয়া সম্পদ আতœসাধ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার সত্যতা অনুসন্ধানে আজ দুপুরে (২৩ ডিসেম্বর) প্রেমবাগ ইউনয়নে গিয়ে সচিবের নিকট ইস্যুকৃত সনদের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি অফিস কপি দেখান। সেখানেই প্রমান মেলে জালিয়াতির। মৃত্য ব্যাক্তির মৃত্যুর সনদ গ্রহপূর্বক ওয়ারেশ কায়েম সনদ প্রদানের বিধান থাকলেও এখানে তা মানা হয়নি। ইস্যুকৃত সনদের বিপরীতে ওয়ারিশগণের কোন আবেদনের কাগজ অনেক খোঁজা খুঁজি করেও দেখাতে পারে নাই সচিব মোরশেদ আলী ও হিসাব রক্ষক সাজেদুর রহমান (বাবু)। এবিষয়ে ইউপি সদস্য আনোয়ার খাঁনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার কাছে দুলাল চন্দ্র শীলের ছেলে কৃষ্ণ পদ শীল, দেবাশীস দত্ত শীল জানান আমার পিতা ভারতে মারা গেছে তাই আমি তাদের এই সনদ পেতে সাহায্য করেছি। এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক মফিজ উদ্দীনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ওয়ারেশ সনদ প্রদানের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যের তদন্ত প্রতিবেদন সাপেক্ষে দেওয়া হয়। যদি দুলাল চন্দ্র শীল জীবিত থাকে এবং তার ওয়ারেশগণ ও ইউপি সদস্য সে তথ্য গোপন রেখে জালিয়াতির মাধ্যমে ওয়ারেশ কায়েম সনদ নিয়ে থাকেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাপস্থা গ্রহন করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা